মেনু নির্বাচন করুন
প্রকল্প পরিচালক, তৃণমূল পর্যায়ে অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে নারী উদ্যোক্তাদের বিকাশ সাধন প্রকল্প
মোঃ মনিরুজ্জামান

মোঃ মনিরুজ্জামান

প্রকল্প পরিচালক, তৃণমূল পর্যায়ে অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে নারী উদ্যোক্তাদের বিকাশ সাধন প্রকল্প


মোবাইল : ০১৩২৪-৭২৫০০০

ফোন (অফিস) : ০২-৫৮৩১১৭৮৭

ফ্যাক্স : নাই

ব্যাচ (বিসিএস) : ২৭

বর্তমান কর্মস্থলে যোগদানের তারিখ : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

মোঃ মনিরুজ্জামান

প্রকল্প পরিচালক (উপসচিব)

জেলাভিত্তিক মহিলা কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রকল্প (৬৪ জেলা)

জাতীয় মহিলা সংস্থা

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়

 

জনাব মোঃ মনিরুজ্জামান গত ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রিঃ তারিখে প্রকল্প পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এর পূর্বে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে মানিকগঞ্জ জেলায় কর্মরত ছিলেন। বিগত ১৩ বছর ধরে তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাঠ প্রশাসনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক); অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব); অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট; উপজেলা নির্বাহী অফিসার; সিনিয়র সহকারী কমিশনার; সহকারী কমিশনার (ভূমি); জেলা ত্রাণ ও পুণর্বাসন কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার; সার্টিফিকেট অফিসার; নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি); রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর (আরডিসি) এবং সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

 

তিনি ২০০৮ সালে ২৭তম বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারে সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে সিরাজগঞ্জ জেলায় যোগদান করেন। জেলাপ্রশাসকের কার্যালয়, সিরাজগঞ্জে কর্মকালীন সময়ে তিনি জেলাপ্রশাসক মহোদয়ের স্টাফ অফিসার; এনডিসি; আরডিসি; উপপরিচালক, স্থানীয় সরকার; ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা; সার্টিফিকেট অফিসারসহ বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বগুড়া জেলার কাহালু উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দক্ষতার সাথে কাজ করে ভূমি ব্যবস্থাপনায় উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেন। পরবর্তীতে তিনি ২০১৫ সালের ডিসেম্বর হতে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সারিয়াকান্দী, বগুড়ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন এবং সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে ও নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জীবনমান উন্নয়নে নিরলসভাবে পরিশ্রম করেন। এ সময়ে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা, উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি এর সভাপতি এবং উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড এর প্রশাসক হিসেবে জনবান্ধব বিভিন্ন সংস্কারপূর্বক প্রতিষ্ঠানগুলোকে সাংগঠনিকভাবে সক্রিয়  করেন। তিনি বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়, ময়মনসিংহে সিনিয়র সহকারী কমিশনার এবং সর্বশেষ অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক হিসেবে মানিকগঞ্জ জেলায় কর্মরত ছিলেন। তিনি ৭ মার্চ ২০২১ খ্রী. তারিখে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর উপসচিব হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন।

 

তিনি চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলার এক সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান। তাঁর পিতা মোঃ মোকলেছুর রহমান একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও যুদ্ধকালীন প্রশিক্ষক ছিলেন। তাঁর মাতার নাম আমেনা আক্তার। জন্মসূত্রে তিনি ঢাকা জেলার উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ১৬ নং ওয়ার্ডের উত্তর কাফরুল এলাকার বাসিন্দা। ব্যক্তি জীবনে তিনি বিবাহিত এবং এক পুত্র সন্তানের জনক। তিনি পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষি বিষয়ে অধ্যয়ন করেন এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃষি বিষয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমএ ইন গভর্নেন্স এন্ড ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

 

দক্ষতা উন্নয়নে তিনি বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ কোর্স, আইন ও প্রশাসন কোর্স, সার্ভে এন্ড স্যাটেলমেন্ট কোর্স, ইনোভেশন ইন পাবলিক সার্ভিস, Right to information, বাংলাদেশ মিলিটারী ওরিয়েন্টেশন কোর্স, প্রকিউরমেন্ট, ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট প্রশিক্ষণ, দুর্নীতি দমন কোর্স, ই-সার্ভিস ডেলিভারী, Fiscal decentralization & Local Governance in Bangladesh কোর্স সম্পন্ন করেন। এছাড়া দেশের বাহিরে Familiarization programme on the Local Government System in the Philippines, ভারতে অনুষ্ঠিত Mid-career Training Program in the field administration for civil servants of Bangladesh, Chinese Development Practices and Strategies for Bangladesh Government Officers, মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত programme on sustainable policy planning and governance ও Field study with Vietnamese Government Ministries and agencies কোর্সে অংশগ্রহণ করেন।

 

তিনি একজন স্কাউটার। কাব, স্কাউট ও রোভার ৩টি বিভাগের ইউনিট লিডার বেসিক কোর্স সম্পন্ন করেছেন। সর্বশেষ তিনি কমিশনার, বাংলাদেশ স্কাউটস, মানিকজগঞ্জ জেলার দায়িত্ব পালন করেন।

 

তিনি প্রশিক্ষণ ও সরকারি দায়িত্ব পালনের অংশ হিসেবে ভারত, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন, নেপাল, চীন, সিঙ্গাপুর প্রভৃতি দেশে ভ্রমণ করেন।